2

প্রেমিকের সঙ্গে একা ঘরে ধরা, মেয়েকে খুন করলেন মা

১৯ বছর বয়সী মেয়েকে বিয়ে দেয়ার জন্য ছেলে খুঁজছিলেন মা। তবে বিয়েতে রাজি হচ্ছিল না মেয়ে। এর পেছনে যে প্রেমের কারণ লুকিয়ে ছিল তা অবশ্য জানতেন না সেই কর্মজীবী মা। এর মধ্যেই ফাঁকা বাড়ি পেয়ে প্রেমিককে নিয়ে আসেন মেয়ে। সেটা হাতেনাতে ধরলেন মা।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হায়দ্রাবাদে। ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, বুধবার (২০ মার্চ) রাজ্যের ইব্রাহিমপাটনামে বারঘাভি নামের ওই কিশোরীর মা কাজ থেকে বাড়িতে আসেন দুপুরের খাবার খেতে। ঢুকেই দেখেন তার মেয়ে ফাঁকা বাড়িতে প্রেমিককে নিয়ে এসেছে। ওই সময় মেয়ের প্রেমিককে বাড়ি থেকে বের করে দেন তিনি। এরপর মেয়ের ওপর নির্যাতন চালান। এক পর্যায়ে গলায় শাড়ি দিয়ে চেপে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে মেয়েকে হত্যা করেন।

ইব্রাহিমপাটনামের পুলিশ কর্মকর্তা সত্যনারায়ণ গণমাধ্যমকে বলেন, ওই কিশোরীর ছোট ভাই দাবি করেছে, সে তার নিজ চোখে হত্যাকাণ্ডটি দেখেছে। এরপর নিজ মায়ের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করে। যে সময় তার মা তার বোনকে মারধর করছিল তখন সে ঘরের জানালার বাইরের পাশে ছিল।

‘ছাত্রলীগের বাইরের নিয়োগ ক্যান্সেল’ চবি রেজিস্ট্রারকে ছাত্রলীগের ধমক
পুলিশ জানিয়েছে, কয়েকদিন ধরে নিজ মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার জন্য চেষ্টা করছিলেন ওই মা। এজন্য মেয়ের জন্য পাত্রও খুঁজছিলেন তিনি। কিন্তু এরমধ্যেই তার মেয়ের এমন কাণ্ডে রেগে যান তিনি। তা থেকেই নিজ হাতে মেয়েকে হত্যা করেন। ঘটনার পর বারঘাভির মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।