Breaking News
Home / Onno Rokom / ৪১ বছরের ডিভোর্সি নারী পাত্র চান ২৩ বছরের !

৪১ বছরের ডিভোর্সি নারী পাত্র চান ২৩ বছরের !

বয়স ৪১। ব্যক্তিগত জীবনে ডিভো’র্সি। ফের বিয়ে করতে চান। কিন্তু পাত্র ২৩ বছর বয়সী। একই সাথে বান্ধবী থাকা যাবে না, ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে না সহ রয়েছে নানা শর্ত।পাত্র চেয়ে এমনই একটি বিজ্ঞাপন সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে।

জানা গেছে, ৪১ বছরের ওই নারী বাংলাদেশি হলেও থাকেন মালয়েশিয়ায়। সেখানে পাত্রীর নিজস্ব ব্যবসা ও বাড়িগাড়ি রয়েছে। বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পাত্রকে বিয়ের পর পাত্রীর ব্যবসা দেখাশোনায় সাহায্য করতে হবে।

পাত্র চেয়ে যেসব শর্ত দেয়া হয়েছে- অবশ্যই হ্যান্ডসাম এবং সুন্দর দেখতে হতে হবে। ফর্সা এবং ভাল সাস্থ্যের হতে হবে। কালো ও চাপাভাঙ্গা পাত্রদের আবেদন করার দরকার নেই। বয়সঃ ২৩ থেকে ২৮ এর মধ্যে হতে হবে।

বিয়ের পর কলেজে/ভার্সিটিতে পড়াশোনার নামে মেয়েদের সাথে ন’ষ্টামি করা যাবেনা। বউয়ের কথার অবাধ্য হওয়া যাবেনা। কোনও মেয়ে বন্ধু থাকা চলবে না। অনুমতি ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবেনা। ফেইসবুক/ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবেনা।

সর্বশেষ ওই বিজ্ঞাপনে লেখা হয়েছে, পাত্রকে টাকাপয়সার কোনও অভাব দেয়া হবেনা। বিজ্ঞাপনটি ভার্চুয়ালি ভাইরাল হয়ে পড়েছে। অনেকেই ইতিবাচক নেতিবাচক মন্তব্য করছে। আরো পড়ুন উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আসছে মৃদু শৈত্যপ্র’বাহ দেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে ফের মৃদু শৈত্যপ্র’বাহ বয়ে যাওয়ার আ’ভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, “বছরের শুরুর শৈত্যপ্র’বাহ কেটে গিয়েছিল।

মাঝখানে হালকা বৃষ্টি হয়েছে। এখন রাতের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। দিনের তাপমাত্রাও কমতে পারে। শনিবার থেকে দুই-তিন দিন বিরাজ করতে পারে এ শৈত্যপ্রবাহ।”

শুক্রবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায়, ৯ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
রুহুল কুদ্দুস বলেন, রাজধানী ও আশপাশের অঞ্চলে শনিবার বৃষ্টির স’ম্ভাবনা নেই। তবে সকালের দিকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকলে শীতের অনুভূতিও বাড়তে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা বিরাজ করছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। ফলে সূর্যের দেখা মিলছে দেরিতে। এর প্রভাবে শীত অনুভূত হচ্ছে বেশি।

বাংলাদেশে ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শীত মৌসুম ধরা হয়। তবে জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে বাংলা পঞ্জিকার মাঘ মাসের শুরুতে বরাবরই শীতের তীব্রতা বাড়ে। এবারের শীত মৌসুমে ডিসেম্বরের শেষার্ধে দুটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যায় দেশের বিভিন্ন এলাকায়। জানুয়ারির প্রথম সেপ্তাহেও ছিল এক দফা শৈত্যপ্রবাহ। শনিবার শৈত্যপ্রবাহ শুরু হলে তা হবে এ মৌসুমের চতুর্থ।

গত ২৯ ডিসেম্বর তেঁতুলিয়ায় থার্মোমিটারের পারদ নেমেছিল ৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এ মৌসুমে এটাই দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আর নতুন বছরের শুরুতে ৭ জানুয়ারি পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা নামে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গেলে তাকে তীব্র শৈত্যপ্র’বাহ হিসেবে ধরা হয়। আর তাপমাত্রা ৬-৮ ডিগ্রির মধ্যে থাকলে মাঝারি এবং তাপমাত্রা ৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে তাকে মৃ’দু শৈ’ত্যপ্রবাহ বলে।

About pressroom

Check Also

ম’য়’মন’সিং’হে ৩ হি’ন্দু যু’বকের ই’সলাম গ্রহন

ইসলাম শিক্ষা দেয় যে আল্লাহ দয়ালু, করুনাময়, এক ও অদ্বিতীয়। ইসলাম মানব জাতিকে সঠিক পথ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by keepvid themefull earn money