Breaking News
Home / News Line / সন্তানকে বুকের মধ্যে জড়িয়ে নিয়ে পানিতে তলিয়ে যায় মা

সন্তানকে বুকের মধ্যে জড়িয়ে নিয়ে পানিতে তলিয়ে যায় মা

মায়ের কোল সন্তানের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ স্থান। মা সারা জীবন তার কোলে আঁকড়ে ধরে রাখতে চান তার সন্তানকে। মৃ’ত্যুর সময়ও লঞ্চের ভিতরে তার শি’শু সন্তান যাতে তার কোল হতে হাড়িয়ে না যায় সে জন্য পরিহিত বোরকার শরীরের পিছনে বাধা ফিতা খুলে সন্তানকে বুকের মধ্যে জড়িয়ে সেই ফিতা বেধে সন্তানকে নিয়ে পানিতে তলিয়ে যায় মা মা’রুফা।

হয়তো সে ভেবেছিলো পানিতে তলিয়ে মা’রা গেলে ছোট ২২ মাসের শি’শু আবু তালহার লা’শও খুঁজে পাওয়া যাবেনা। পানির স্রোতে হারিয়ে যাবে ছোট তালহার লা’শও। এমন ভেবেই হয়তো পরিহিত বোরকার ফিতা খুলে নিজ বুকে জড়িয়ে ধরে সেই বোরকার ফিতা দিয়ে বেধে রেখেছিলেন শি’শু তালহাকে।

এমনটাই বলেছেন মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজে’লার আপরকাঠি গ্রামের নি’হত মা’রুফা বেগমের (২৮) স্বামী বিল্লাল দেওয়ান। স্ত্রী’ ও শি’শু সন্তান তালহাকে হারিয়ে অ’পর সন্তান নাঈ’মা ইস’লামকে (৬) সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা খুঁজছে সে। নাঈ’মা রাতে কয়েকবার নি’হত মাকে খুঁজেছে। গত মঙ্গলবার ভোরে ঘুম থেকে উঠে কয়েকবার বাবাকে বলেছে মায়ের কবরের পাশে নিয়ে যেতে। সে মাকে ও ভাইকে দেখবে বলে বায়না ধরছে।

ময়ূর-২ লঞ্চ
বিল্লাল দেওয়ান আরো জানান, তার স্ত্রী’ মা’রুফা বেগমের পিত্ত থলির নিচে পাথর হয়েছিল। তাই ঢাকার অ্যাপোলো হাসপাতা’লে সে তার শি’শু ছে’লে তালহাকে নিয়ে ডাক্তার দেখাতে যাচ্ছিল। সাথে তার ভায়রা মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজে’লার কুকটিয়া গ্রামের আলম বেপারীও ছিলো।

সকাল সাড়ে আটটার দিকে কয়েকবার স্ত্রী’র মোবাইলে ফোন দেয় সে। স্ত্রী’ ফোন না ধ’রায় ভায়রা আলম বেপারীর সাথে কথা হয় তার। সে সময় ভায়রা আলম বেপারী জানান, কিছুক্ষণের মধ্যেই লঞ্চঘাটে নামবে তারা। কিন্তু তারপর ৯ টার দিকে স্ত্রী’, ভায়রার মোবাইলে ফোন দিয়ে ফোন বন্ধ পেয়ে উৎকণ্ঠায় থাকেন তিনি। পরে জানতে পারেন ঢাকার শ্যামবাজার এলাকায় লঞ্চ ডুবির কথা। তিনি আরো জানান, তখন তার আর বুঝতে বাকি ছিলোনা যে তার জীবনের সব শেষ হয়ে গেছে।

পরে দুপুরের দিকে প্রথমেই তার স্ত্রী’র ও ছে’লের লা’শ উত্তোলন করেন উ’দ্ধারকারীরা। উ’দ্ধারকারীরা তাদের জানিয়েছেন তার স্ত্রী’র বোরকার ফিতা দিয়ে সন্তান তালহাকে বেধে বুকের মধ্যে জড়িয়ে রেখেছিলেন৷ পরে গত সোমবার বিকাল ৪ টার দিকে নি’হতদের লা’শ বুঝিয়ে দিলে তাদের রাত ৮টার দিকে টঙ্গিবাড়ী উপজে’লার আড়িয়ল সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এর আগে গত সোমবার রাজধানীর শ্যামবাজার এলাকা সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে মনিংবার্ড নামের লঞ্চ ডুবির ঘটনা ঘটে। ওই লঞ্চের যাত্রী ছিলেন নি’হত উপরোক্ত তিন জন।

About pressroom

Check Also

শীতে বিয়ে না করার পরামর্শ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে আসন্ন শীতে বিয়ে ও পিকনিকসহ জনসমাগম হয় এমন অনুষ্ঠান আয়োজন না করার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by keepvid themefull earn money