Breaking News
Home / Health News / জেনে নিন,ঘুমের ওষুধ না খেয়ে সহজে ঘুমানোর ১০ উপায়

জেনে নিন,ঘুমের ওষুধ না খেয়ে সহজে ঘুমানোর ১০ উপায়

রাতে ঠিকমতো ঘুম না হলে সারাদিনের কোনো কাজই ভালোভাবে শেষ করা যায় না। অনিদ্রার কবল থেকে বাঁচার সহজ ১০ উপায় জেনে নিন

অন্ধকার ঘর: ঘুমনোর সময় ঘরের সব আলো বন্ধ করা উচিত। কারণ রাত্রে আলো জ্বললে ঘুম আসতে দেরি হয়।

গোসল : ঘুমনোর জন্য বিছানায় যাওয়ার আগে ঠান্ডা পানিতে গোসল করা ভাল অভ্যাস। এতে স্ট্রেস কমবে, শরীর তরতাজা হয়।

অল্প খাবার : নৈশভোজে বেশি পরিমাণ খাওয়া উচিত নয়। রাতে বেশি খেলে তা হজমের সমস্যা তৈরি করে। সহজে ঘুমও আসতে চায় না।

ব্যায়াম : রাতে ব্যায়াম করা উচিত নয়। এতে শরীরে বেশি এনার্জি আসে। ফলে ঘুম আসতে চায় না। বরং সকালের ব্যায়াম উপকারী।

চকোলেট : ঘুমানোর আগে চকোলেট পরিহার করা উচিত। আসলে চকোলেটে থাকে ক্যাফিন, যা ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়।

রাতের স্ন্যাক্স : দেরি করে ঘুমোতে যাওয়া যদি আপনার অভ্যেস হয় তাহলে নিশ্চয়ই টুকটাক স্ন্যাক্স জিভে ঠেকাতে হয়? রাতে খিদে পেলে খান, তবে সামান্য পরিমাণে।

পানি পান : সারাদিন কমপক্ষে দুই লিটার পানি পান করা উচিত। আসলে সারাদিন পরিশ্রমের ফলে শরীরে আর্দ্রভাব কমে যায়। ফলে বেশি ক্লান্ত লাগে। এই অবস্থায় বেশি করে পানি পান করলে শরীর আর্দ্র থাকে। রাত্রে সুনিদ্রায় যা সহায়ক।

রিল্যাক্স : সারাদিন পরিশ্রমের মাঝে অল্প ব্রেকে ঘুমিয়ে নিলে শরীর বেশ সতেজ থাকে। এই কম সময়ের ঘুমও আপনাকে চাঙ্গা করে তুলবে।

ধূমপান : ধূমপানের অভ্যাস থাকলে তা পরিহার করা উচিত। এতে শুধু ঘুম নয় পুরো স্বাস্থ্যই ভালো থাকবে।

পুরুষদের চেয়ে মেয়েদের বেশি ঘুম প্রয়োজন

সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে রান্না ঘরে ঢুকে পড়েন আপনার স্ত্রী! বেড টি নিয়ে হাজির হন! ভালবাসা থাকলে ব্যাপারটা উল্টে দিন। সমীক্ষা বলছে, আপনার চেয়ে তার ঘুম বেশি দরকার।

ধরা যাক, রাতে এক সঙ্গে শুতে গিয়েছেন এবং ঘুমিয়েছেন। এবার আপনি যদি সকাল ৮টায় ঘুম থেকে ওঠেন, তবে আপনার স্ত্রীর ওঠা উচিত ৮টা বেজে ২০ মিনিটে। এমনটাই বলছে বিজ্ঞান। বলছে, পুরুষের তুলনায় মহিলাদের ২০ মিনিট বেশি ঘুম দরকার। আর এটা বেশি করে দরকার মধ্যবয়স্ক মহিলাদের ক্ষেত্রে। ব্রিটেনের লাফবরো বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় এমনই মত প্রকাশ করা হয়েছে।

গবেষণা বলছে, মেয়েদের মস্তিষ্ক বেশি জটিল, তাই ঘুমও দরকার বেশি। তা ছাড়া মেয়েদের মাথা সারাদিন বেশি খাটে। অন্তত পুরুষদের থেকে বেশি। আবার, অফিসের থেকে বাড়িতে থাকা মেয়েদের মাথা নাকি বেশি খাটে।

গবেষকদের বক্তব্য, ঘুম মস্তিষ্ককে পুনরুজ্জীবিত করে। ঘুমের মধ্যে মস্তিষ্ক বিশ্রাম পায় আর সেটাই খুব প্রয়োজনীয় চিকিৎসা। দিনের বেলা মস্তিষ্ক যত বেশি কাজ করবে, রাতে ঘুম তত বেশি প্রয়োজন। মেয়েরা একই সঙ্গে অনেক কাজ করেন, অনেক রকম চিন্তা করেন, অনেক বিষয়ে মাথা ঘামান এবং খাটান। আর সেই জন্যই বেশি ঘুম দরকার। অন্তত ২০ মিনিট বেশি।

গবেষকরা জানিয়েছেন, পর্যাপ্ত ঘুমোতে পারলে মাথা খাটানো এবং ঘামানো আরও ভালভাবে করা যায়। তাই ঠিকঠাক ঘুমনো গিন্নিরা আরও মাথা খাটাতে পারেন। সেটা অন্যের অসুবিধা হলেও তাদের সক্ষমতা বাড়েই।

About pressroom

Check Also

বাড়ির টবেই আলু চাষের সহজ ও কার্যকরী উপায়

বাজারে আলু কিনতে গিয়ে তো হাতে আগুন লাগার জোগাড়। কোথাও চল্লিশ টাকা, আবার কোথাও পঞ্চাশ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by keepvid themefull earn money