Breaking News
Home / COVID-19(Coronavirus) / করোনা মোকাবিলায় নার্সের কাজে যোগ দিলেন বলিউড অভিনেত্রী

করোনা মোকাবিলায় নার্সের কাজে যোগ দিলেন বলিউড অভিনেত্রী

বিশ্ব জুড়ে মহামারী চলছে, তার নাম করোনা। করোনার প্রকোপ দিনে দিনে বেড়ে চলেছে। করোনা ভাইরাসের মারণ থাবায় প্রাণ হারিয়েছে বহু মানুষ। সারা বিশ্বে ভয়াবহ আকার নিয়েছে করোনা। এখনও পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লাখ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩৪ হাজারের। ভারতেও করোনা ধীরে ধীরে প্রভাব বিস্তার করেছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১৬০০ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪৯ জনের।

করোনা রুখতে সারা ভারতে লকডাউন জারি করা হয়েছে। আগামী ১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত টানা ২১ দিনের লকডাউন জারি করা হয়েছে। এই লকডাউনে সমস্ত গণপরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। রেল পরিষেবা থেকে শুরু করে মেট্রো পরিষেবাও বন্ধ রাখা হয়েছে। করোনা রুখতে একমাত্র দাওয়াই লকডাউনই মনে করেছেন বিশ্বের তাবড় তাবড় বিশেষজ্ঞরা।

লকডাউনের আওতায় পড়েছে স্কুল কলেজ থেকে সিনেমা হল গুলো। এমনকি সিনেমার সমস্ত শ্যুটিং বন্ধ আছে এই লকডাউনে ফলে সাধারন মানুষ থেকে সেলিব্রেটি সকলেই গৃহবন্দী। সবারই দিন কাটছে ঘরে বসে। নিজেদের কাজে সবাই ব্যস্ত রেখেছে নিজেদেরকে। ভারতের পরিস্থিতিও একটু একটু করে খারাপের দিকে যাচ্ছে আর এই পরিস্থিতিতে দেশের পাশে দাড়ালেন শিখা মালহোত্রা। কম বেশি সকলেই সাহায্য করেছেন এই পরিস্থিতিতে। অক্ষয় কুমার প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবিলে ২৫ কোটির অনুদান দিয়েছেন। আরও অনেক সেলেবই আছেন যারা কম বেশি সাহায্য করেছেন কিন্তু এই অভিনেত্রীর সাহায্যের পন্থাটা অন্যরকম। একদম অভিনব উপায় সাহায্য করলেন দেশকে।

লকডাউনে সবই বন্ধ সিনেমার শ্যুটিং ও বন্ধ এই ফাকে নিজের সাথেই সময় কাটাচ্ছে সেলেবরা। এরই মধ্যে নজির গড়লেন শিখা মালহোত্রা। যদিও খুব বিখ্যাত অভিনেত্রী নন শিখা , ফ্যান ছবিতে শাহ্রুখ খানের সাথে অভিনয় করেছিলেন। গত ফেব্রুয়ারিতে কাঁচলি ছবিতে অভিনেতা সঞ্জয় মিশ্রর সাথে তার অভিনয় প্রশংসিত হয়। এই শিখা মালহোত্রা মুম্বাইয়ের বাল ঠাকরে ট্রমা সেন্টারে নার্স হিসাবে কাজ করছেন। প্রসঙ্গত মুম্বাই মহারাস্ট্রে সবথেকে বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছে। সেখানে কোভিড-১৯ রোগীদের যত্ন নিচ্ছে। তিনি পড়াশোনার পাশাপাশি নার্সিং ট্রেনিংও নিয়েছিলেন, এখন সেই শিক্ষা কাজে লাগাতে পেরে গর্বিত বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও সকলকে সরকারী নিয়ম মেনে চলার জন্য অনুরোধ করেছেন।

About pressroom

Check Also

টিস্যুতে ৩ ঘণ্টা, টাকায় এক দিন, মাস্কে ৭ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকে করো’নাভাই’রাস!

করো’নাভাই’রাস থেকে দূরে থাকতে সাধারণ মানুষ একের পর এক উপায় খুঁজে বের করছেন। কখনো মাস্ক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by keepvid themefull earn money