সহকারী জজ হলেন নর্দান ইউনিভার্সিটির ৩ শিক্ষার্থী

চতুর্দশ বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস (বিজেএস) সহকারী জজ পরীক্ষার মেধাতালিকা প্রকাশিত হয়েছে। এতে নিজেদের মেধা দিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের আইন বিভাগের তিন শিক্ষার্থী।

১৪তম বিজেএস এ দূর্দান্ত সাফল্য অর্জনকারী নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের এই তিন শিক্ষার্থী হলেন ২৭তম ব্যাচের সোহানুর রহমান সোহাগ, ১৮তম ব্যাচের আব্দুল মান্নান এবং নোভা নুসরাত।

সোহানুর রহমান সোহাগের মেধাতলিকায় স্থান ৪১তম। নিজের সাফল্যের বিষয়ে সোহানুর রহমান সোহাগ বলেন, কঠোর পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই। সফলতার হাতছানি পেতে হলে নিজের মেধায় শান দিয়ে সফলতা অর্জন করে নিতে হবে। তবে একজন শিক্ষার্থীর সাফল্যের পেছনে বড় ভ’মিকা রাখেন শিক্ষকরা। নর্দান ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নের সময় সকল শিক্ষকরাই আমাকে অনুপ্রাণিত করেছেন আজকের এই অবস্থান অর্জন করার পেছনে। আমি আমার শিক্ষকদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

অন্যদিকে ১৪ তম বিজেসের মেধাতালিকায় স্থান করে নেওয়া নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ১৮ তম ব্যাচের আব্দুল মান্নানও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন শিক্ষকদের প্রতি। বিজেএস এর মেধা তালিকায় স্থান করে নিতে পেরে আনন্দিত আব্দুল মান্নান ও তার পরিবারের সকলেই।

নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের সাফল্যের বিষয়ে নর্দান ইউনিভার্সিটি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো: আব্দুল্লাহ বলেন, শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের কাছে সন্তানতুল্য। সন্তানদের যে কোনো ভালো খবর শুনলে গর্বে আমাদের বুকটা ভরে যায়। আমাদের আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা ইতপূর্বেও বিজেএস-এ তাদের মেধার ছাঁপ রেখেছেন। ১৪তম বিজেএস এ মেধাতালিকায় জায়গা করে নেওয়া শিক্ষার্থীদের আমার ও নর্দান পরিবারের পক্ষ থেকে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানাই। আগামীতেও আমাদের আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের সাফল্যের এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

উল্লেখ্য বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের তথ্য মতে, নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিসের বিভিন্ন পদে কৃতিত্বের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয় বর্তমানে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে ৩ হাজারেরও বেশি তালিকাভুক্ত আইনজীবী রয়েছেন যারা নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের সাবেক শিক্ষার্থী।

Leave a Comment