মায়ের স্বপ্ন পূরণ করলেন পাইলট ছেলে, বিমানে করে নিয়ে গেলেন মক্কায়

প্রত্যেক বাবা–মায়ের তাঁদের সন্তানকে নিয়ে অনেক কিছু স্বপ্ন থাকে। বাবা–মা সব সময় চান সন্তানরা জীবনে সফল হয়ে তাঁদের স্বপ্ন পূরণ করুক। আর সন্তানদের সফল হওয়ার জন্য জীবনে অনেক কিছুই ত্যাগ করতে হয় অভিভাবকদের। অথচ বর্তমানে অভিভাবকদের স্বপ্নপূরণ তো দূরের কথা, বরঞ্চ বৃদ্ধ বাবা–মা’কে না দেখা বা তাদের ওপর সন্তানদের অত্যাচারের ঘটনা প্রায়ই ঘটছে।

এমন অবস্থায় অভিভাবকদের প্রতি সন্তানের যে কর্তব্য রয়েছে এবং তাদের স্বপ্ন পূরণ করাও যে সন্তানের দায়িত্ব তেমনই একটি হৃদয়স্পর্শী গল্প সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একজন বিমান চালক নিজের বিমানে করে তাঁর মাকে মক্কার কাবাতে নিয়ে যাচ্ছেন। ওই বিমান চালকের নাম আমির রশিদ ওয়ানি।

তিনি গত সোমবার টুইটারে লেখাসহ দুটি ছবি পোস্ট করেছেন। রাতারাতি সেই পোস্টটি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। টুইটারে ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বিমানের কেবিনে বসে রয়েছেন আমির রশিদ। আর তার নিচে আরও একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে তাঁর স্কুল কার্ড। তিনি লিখেছেন, তিনি যখন স্কুলে পড়তেন তখন তাঁর মা স্কুল কার্ডে লিখেছিলেন ছেলে বড় হয়ে একদিন পাইলট হবে এবং তারপর বিমানে করে তাঁকে একদিন মক্কায় নিয়ে যাবে।

ছোট থেকেই বিমান চালক হওয়ার স্বপ্ন চোখে নিয়ে তিনি বড় হয়েছিলেন এবং সত্যি সত্যিই তিনি একজন বিমান চালক হলেন। আর মায়ের সেই স্বপ্ন পূরণ করলেন। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘আমার মা আমাকে স্কুলের জন্য একটি কার্ড লিখেছিলেন এবং আমার বুকে ঝুলিয়ে দিয়েছিলেন। মা আমাকে বলতেন যখন তুমি পাইলট হবে তখন আমাকে তোমার বিমানে করে মক্কায় নিয়ে যাবে। আজ আমার মা পবিত্র কাবার যাত্রীদের একজন এবং আমি সেই বিমানের চালক।’

আমির রশিদের আবেগঘণ এই টুইট নেটিজেনদের হৃদয় স্পর্শ করে গিয়েছে। রাতারাতি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে এই টুইট। এখনও পর্যন্ত ৮ লক্ষেরও বেশি মানুষ তার টুইটকে লাইক করেছেন এবং রিটুইট করেছেন ৪ হাজারের বেশি মানুষ। এই পোস্টকে নেটিজেনরা অনুপ্রেরণামূলক পোস্ট বলে খুবই পছন্দ করছেন। একজন লিখেছেন, ‘এই পোস্টটি সত্যিই অনুপ্রেরণামূলক পোস্ট। যাতে বোঝায় যে অভিভাবকদের প্রতি সন্তানদেরও অনেক দায়িত্ব রয়েছে এবং তারা আমাদের কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ।’ আবার একজন লিখেছেন, ‘আপনি একজন একটি ভাগ্যবান সন্তান যে মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছেন।’

Leave a Comment