কাদা থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করে তাক লাগালো স্কুলছাত্র সাইদুর

কাদা থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করে তাক লাগালো স্কুলছাত্র সাইদুর
নদী, পুকুর ও ডোবার কাদা থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছে ভোলার সাইদুর রহমান। সে ভোলা পৌর এলাকার চরনোয়াবাদ মুসলিম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র।বুধবার (২৩ নভেম্বর) ভোলা সদর উপজেলা চত্বরে অনুষ্ঠিত ৪৪তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং সপ্তম বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড মেলায় নিজের এ উদ্ভাবন প্রদর্শন করে সাইদুর।

স্কুলছাত্র সাইদুর রহমানের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সে ও তার এক সহপাঠী মিলে অনেক দিন ধরেই নতুন কিছু তৈরি করার পরিকল্পনা করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ১০-১২ দিন আগে কাদা থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করার পরিকল্পনা করেন। পরে তারা কয়েকবার পরীক্ষামূলকভাবে তৈরি করে সফল হয়। এরপর বুধবার মেলায় তারা বিষয়টি প্রদর্শন করে।

সাইদুরের উদ্ভাবিত কাদা থেকে বিদ্যুৎ তৈরি করতে চারটি পাত্র লাগবে। পাত্রগুলোতে নদী, পুকুর বা কোনো স্থানের কাদা রাখতে হবে। এরপর ওই পাত্রে কয়েকটি দস্তার টুকরা দিতে হবে। এতেই বিদ্যুৎ উৎপান্ন হবে। সবশেষ কার্বন দণ্ডের সঙ্গে তারের সংযোগ করে উৎপাদিত বিদ্যুৎ দিয়ে কোনো খরচ ছাড়াই বাল্ব জ্বালানা যাবে।

সাইদুর জানায়, এটি তাদের একটি ছোট প্রজেক্ট। যদি সরকারিভাবে সহযোগিতা পাওয়া যায় তাহলে তারা বড় প্ল্যান তৈরি করতে সক্ষম। এতে উৎপাদিত বিদ্যুৎ দিয়ে বাল্ব, ফ্যানসহ সব কিছুই চালানো যাবে।সাইদুরের সহপাঠী মো. হাসানাইন বলে, ‘এভাবে বিদ্যুৎ তৈরির পরিকল্পনাকারী সাইদুর। আমি ও আরেক সহপাঠী মিলে তাকে সহযোগিতা করেছি। আমরা এতে সফল হয়েছি।’

ভোলা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তৌহিদুল ইসলাম বলেন, সাইদুরের তৈরি কাদা বিদ্যুতের প্ল্যানটি দেখেছি। আমরা এটি আরও পরীক্ষা করবো। যদি এটি দিয়ে বড় কিছু করা যায় তাহলে আমরা তা করার পরিকল্পনা করবো।দুই দিনব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করেন ভোলা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন। এ সময় সদর ইউএনও তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিতি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইউনুস মিয়া।

Leave a Comment