জেলের কেবিনে স্বামী বা স্ত্রীর সঙ্গে দুই ঘণ্টা কাটাতে পারবেন বন্দিরা!

জেলের ভেতরের কেবিনে স্ত্রী বা স্বামীর সঙ্গে ‘বিশেষ’ দুই ঘণ্টা কাটাতে পারবেন কারাবন্দিরা। মঙ্গলবার থেকে ভারতের পাঞ্জাবের জেলে এ নিয়ম চালু করা হয়েছে। পাঞ্জাবই ভারতের প্রথম রাজ্য, যেখানে স্বামী বা স্ত্রী জৈবিক চাহিদার কথা বিবেচনা করে এ নিয়ম চালু করা হলো।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, প্রাথমিকভাবে গোবিন্দওয়াল সাহিব সেন্ট্রাল জেল, নাভার নতুন জেলা জেল, ভাটিণ্ডার নারী জেলে এ সুযোগ চালু করা হচ্ছে। তবে ভয়ঙ্কর অপরাধী, গ্যাংস্টার, জীবনের ঝুঁকি রয়েছে এমন বন্দি, যৌন হেনস্থায় জড়িতদের সুযোগটি দেওয়া হবে না।

কারা কর্তৃপক্ষ জানায়, স্বামী বা স্ত্রীর সঙ্গে সময় কাটাতে চাইলে জেলে থাকাকালীন বন্দিকে ভালো আচরণ করতে হবে। তবেই সংশোধনাগারের নির্দিষ্ট একটি ঘরে দুই ঘণ্টার জন্য সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে দেবে কারা বিভাগ। ঐ ঘরের সঙ্গে থাকবে শৌচালয়ও। তিন মাসে একবার মিলবে সাক্ষাতের সুযোগ।

কারা বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, যারা দীর্ঘদিন জেলে রয়েছেন, তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। গোটা দেশে প্রথম পাঞ্জাবেই সঙ্গীর সঙ্গে বন্দিদের সময় কাটানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

কারা বিভাগ জানায়, এ নিয়ম চালু হলে বন্দিরা নিজেদের তাগিদেই আচরণ ভালো করার চেষ্টা করবেন। তাদের দাম্পত্য জীবনও সুন্দর হবে।

তবে, শর্তানুসারে বন্দির সঙ্গে দেখা করতে এলে স্বামী বা স্ত্রীর বিয়ের প্রমাণপত্র দেখাতে হবে। পাশাপাশি কোভিড ও এইচআইভি বা কোনো সংক্রামক রোগ না থাকার মেডিকেল সার্টিফিকেটও দেখাতে হবে।

Leave a Comment