১৯৪৫ সালের পর এবারই আসছে কঠিন শীতকাল!

এবারের শীতকাল ইউরোপের জন্য অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক দুইদিক দিয়েই অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং হবে। কারণ ১৯৪৫ সালের পর এবারই সবচেয়ে কঠিন শীতকাল আসছে। জাতীয় সংসদের দুই দিনব্যাপী বিশেষ অধিবেশনের সমাপনী ভাষণে সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট আলেকজান্ডার ভুসিস এসব কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, তার সরকার কোনোমতেই সার্বিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া কসোভোকে স্বাধীন রাষ্ট্র বলে স্বীকৃতি দেবে না বরং নিজের অবস্থান ধরে রাখবে এবং পশ্চিমা চাপ মোকাবিলা করবে।

সার্বিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউরোপীয় ইউনিয়নের কথা উল্লেখ করে বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার ডিক্রো সম্প্রতি রাশিয়ার গ্যাস ছাড়া ইউরোপের অর্থনীতি সম্পূর্ণভাবে ছবির হয়ে পড়বে বলে যে বক্তব্য দিয়েছিলেন, তার উদ্ধৃতি দেন।

তিনি বলেন, বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রীর কথায় যথেষ্ট বাস্তবতা রয়েছে। সমগ্র ইউরোপের অর্থনীতির জন্য ধস নামবে এবং যদি ধস নামে তাহলে তার ঠেকানো অসম্ভব হয়ে পড়বে। সার্বিয়া যদিও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশ নয়, তবে এর তেল সরবরাহ ব্যবস্থা যেহেতু ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর ভেতর দিয়ে চালু সে কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়ন রাশিয়ার বিরুদ্ধে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, তাতে সার্বিয়াও সমানভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

আলেকজান্ডার ডিক্রো বলেন, আগামী ছয় মাস ইউরোপের জন্য অত্যন্ত কঠিন সময়। এর আগে তিনি বলেছিলেন ইউরোপ এবার কঠিন একটি শীতকাল মোকাবিলা করতে যাচ্ছে এবং পরের শীত হবে মেরু অঞ্চলের মতো।

Leave a Comment