চাকরির চিন্তা ছেড়ে সামান্য বিনিয়োগে শুরু করুন এই সহজ ব্যবসা, প্রতিদিন হবে ৫ হাজার টাকা আয়

বর্তমানে কলার থেকে তৈরি চিপস হয়ে ওঠছে ক্রমেই জনপ্রিয়। এই ব্যবসার ব্যাপারে বলতে গেলে এটি অত্যন্ত লাভজনক ব্যবসার মধ্যে আসে। অনেক আগে থেকেই কলার চিপস খুব জনপ্রিয় একটি ভারতীয় স্ন্যাকস। এখন বিদেশিরাও বেশ পছন্দ করছে এই চিপস। কলার চিপস ব্যবসা শুরু করতে এলাকার মধ্যে কোম্পানির লোকদেরও খুঁজে বের করতে হবে যারা ইতিমধ্যেই এই ব্যবসায় রয়েছে। এছাড়া বাজারে দখল বজায় রাখতে এবং প্রতিযোগীদের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে তাদের কাজের ধরন এবং ব্যবসার মডেল খুব ভালভাবে বুঝতে হবে।

বর্তমানে প্যাকিং, গুণমান, এবং দাম সবই ভেবেচিন্তে সাবধানে করতে হবে। এগুলি এখনকার দিনে ব্যবসার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাস এইসব গুলি ঠিকঠাক করে নিলেই ব্যবসায় সাফল্য পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে উঠবে। বর্তমান সময়ে অনেকেই তাদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে হয়ে উঠেছেন সচেতন। যারা আগে আলুর চিপস খেতেন তারা এখন কলার চিপস খেতে পছন্দ করছেন। এতে পটাশিয়ামের পাওয়া যায়, যা হার্টবিট স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। এর পাশাপাশি দুর্বলতা, ক্লান্তি, ব্যথা ও নার্ভাসনেসের সমস্যাও দূর করে।

কলা চিপস খাওয়ার উপকারিতার কারণে অনেকেই আলুর চিপসের পরিবর্তে এখন কলার চিপস খেতে পছন্দ করছেন। এমন পরিস্থিতিতে দিন দিন বাড়ছে এই চিপসের চাহিদা। ছোট শহর এবং শহরতলীর দিকে কলার চিপগুলি এখনও কম জায়গায় পাওয়া যায়, তাই সম্ভব নিজের ভাল বাজার তৈরি করা। তবে এই কলার চিপস তৈরি করার জন্য প্রয়োজন কিছু গুরুত্বপূর্ন নথির।

১) প্রথমেই প্রয়োজন FSAAI এর লাইসেন্স। কারণ কলার চিপস একটি খাদ্য সামগ্রীর ব্যবসা।তাই এজন্য প্রয়োজন FSAAI এর লাইসেন্স ।

২) জিএসটি শংসাপত্র: যে কোনও ব্যবসা শুরু করতে প্রথমেই জিএসটির সাইটে গিয়ে নাম নথিভুক্ত করতে হবে।GST শংসাপত্র পাওয়ার পর প্রতি মাসে GST ফাইল করতে পারা সম্ভব।

৩) ট্রেড লাইসেন্স: এবার একটি ব্যবসায়িক লাইসেন্সেরও প্রয়োজন হবে। যা স্থানীয় পৌর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে পাওয়া যাবে।

৪) MSME তে নাম নথিভুক্তকরন: একটি ছোট ব্যবসা শুরু করতে, MSME তে নাম নথিভুক্ত করার প্রয়োজন হবে। এর মাধ্যমে সরকারি ভর্তুকি এবং বিভিন্ন ধরনের তহবিল, ঋণ বা অন্যান্য সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যেতে পারে।

৫)ফুড বিজনেস অপারেটর লাইসেন্স: ফুড বিজনেস অপারেটর লাইসেন্স প্রয়োজন তাদেরই, যারা খাদ্য সংক্রান্ত বিষয়ে ব্যবসা করছে। কারণ যদি কলার চিপস প্যাকেজ করে প্যাকেটে বিক্রি করা হয়, তাহলে এই কাজটি করতে ফুড বিজনেস অপারেটর লাইসেন্সের প্রয়োজন হবে।

লাইসেন্সের পর এবার প্রয়োজন যন্ত্রপাতি। যেখান থেকে তৈরি হবে কলার চিপস। এজন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রগুলি হলো:- ১)পিলার ২)স্লাইসার ৩) চিপস ভাজার জন্য মেশিন ৪) প্যাকিং মেশিন ৬)মিক্সার। ব্যাস এইকটি মেশিন থাকলেই ব্যবসা শুরু করা সম্ভব। তবে মেশিনগুলি কিনতে চাইলে Indiamart.com থেকে কিনে নেওয়া যেতে পারে। তবে অফলাইনেও পাওয়া যায় এই মেশিন। দাম সাধ্যের মধ্যেই। মোট ২৮ থেকে ৩০,০০০ টাকা লাগবে এগুলি কিনতে। তবে এই মেশিনগুলো বসাতে প্রয়োজন ৫ থেকে ৬ হাজার বর্গফুট জায়গা।

Leave a Comment