শিক্ষক নিয়োগঃ ৫৪ হাজার পদে ৮১ লাখের বেশি আবেদন করে রেকর্ড

বেসরকারি স্কুল-কলেজ, মাদারাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এন্ট্রি লেভেলের ৫৪ হাজারের বেশি পদে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে আবেদন গ্রহণ শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) রাত ১২টায় শেষ হয়েছে। এখন পর্যন্ত এসব পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে আবেদন পড়েছে ৮১ লাখ ১৬ হাজারের বেশি।

সে হিসেবে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ পেতে প্রতিটি পদে আবেদন পড়েছে দেড়শটি। প্রতিজন প্রার্থী একাধিক আবেদন করার সুযোগ পেয়েছেন। আর মে মাসেই এ ৫৪ হাজার শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশ প্রক্রিয়া শেষ করার পরিকল্পনা করেছে এনটিআরসিএ। বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের ৮১ লাখ আবেদন আগে কোন নিয়োগ প্রক্রিয়ায় জমা পড়েনি। এটা এ্কটা রেকর্ড বলা যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জানতে চাইলে শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, বিপুল সংখ্যক আবেদন জমা পড়েছে। দুপুর পর্যন্ত ৮১ লাখ ১৬ হাজার আবেদন জমা পড়েছে। রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ আছে। তাই আবেদন কিছুটা বাড়তে পারে। চেয়ারম্যান আরও বলেন, পরিকল্পনা অনুসারে আমাদের নিয়োগ সুপারিশ প্রক্রিয়া করতে ২৫-২৬ দিনের মত সময় লাগবে। এসময়ের মধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া করে প্রার্থীদের শিক্ষক শূন্যপদগুলোতে নিয়োগের সুপারিশ করা হবে। আমরা দ্রুততম সময়ের মধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া শেষ করতে চাই। আশা করছি, মে মাসেই প্রার্থীদের নিয়োগ সুপারিশ করতে পারবো। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে কাজ করছে এনটিআরসিএ।

এনটিআরসিএর কর্মকর্তারা দৈনিক বলেন, আমরা ধারণা করেছিলাম ৮০ লাখ আবেদন পড়বে। কিন্তু আবেদন সংখ্যা ধারণাকেও ছাড়িয়ে গেছে। ৮১ লাখ ১৬ হাজার প্রার্থী আবেদন করেছেন। যা রেকর্ড।

আবেদন সংখ্যা কেন বেশি জানতে চাইলে কর্মকর্তারা দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১২ জুন এমপিও নীতিমালা জারির আগে যারা সনদ অর্জন করা প্রার্থীরা যাদের বয়স ৩৫ এর বেশি হয়ে গেছে তারাও আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নিবন্ধন সনদধারী ও ইনডেক্সধারী শিক্ষকরাও নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পেরেছেন। তাই এতো আবেদন জমা পড়েছে।

জানা গেছে, প্রার্থীরা গত ৪ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারছেন। ৩০ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। তৃতীয় দফায় শিক্ষক নিয়োগে ৫৪ হাজার ৩০৪টি পদের মধ্যে ৪৮ হাজার ১৯৯ টি এমপিওভুক্ত শূন্যপদ। ননএমপিও পদ আছ ৬ হাজার ১০৫ টি। এগুলোর মধ্যে ২ হাজার ২০৭ টি এমপিও পদে রিট মামলায় অংশগ্রহণ করা প্রার্থী আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। সূত্রঃ দৈনিক শিক্ষা

About pressroom

Check Also

রিকশা চালকের দুই ছেলে বিসিএস এক ছেলের এমবিবিএস।

রিকশা চালিয়ে অর্থ উপার্জন করে তিন ছেলেকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *