Breaking News
Home / BCS Examination / বিসিএস ক্যাডার হয়েই জবাব দিলেন তামান্না

বিসিএস ক্যাডার হয়েই জবাব দিলেন তামান্না

টানাপড়েনের সংসার। শুধু মাত্র বাবার উপার্জনেই সংসার চলে। স্বল্প আয়ে বাবার খরচেই চলে ৩ বোনের পড়াশুনা। তার উপর তো আছেই প্রতিবেশীদের নানা কথা। ‘মেয়ে হয়ে কী করবে’। ‘মেয়েরা সংসারের বোঝা’ এসব।

কিন্তু সব বাধাকে উপেক্ষা করে এগিয়ে যান কামরুন্নাহার তামান্না। ইচ্ছা আর চেষ্টার শক্তিতে জয় হয় তার। ভেঙে পড়া এই সমাজকে আঙ্গুল দিয়ে বুঝিয়ে দেন মেয়েরাও পারে।

দারিদ্রতার সঙ্গে যুদ্ধ করে তামান্না পৌঁছে গেছেন জীবনের চূড়ান্ত লক্ষে। খেয়ে না খেয়ে লড়াই করে তামান্না এখন বিসিএস ক্যাডার। ৩৬তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে কামরুন্নাহার তামান্না কৃষি ক্যাডারে আছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রেজওয়ানা আক্তার তন্নী, কামরুন্নাহার তামান্না, শামসুন্নাহার রিমি তিন বোন। তাদের ভাই নেই। তামান্না বোনদের মধ্যে মেজো।

ঝালকাঠি সরকারি হরচন্দ্র বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২০০৮ সালে জিপিএ ৪.৮১ পেয়ে এসএসসি এবং ২০১০ সালে ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজ থেকে জিপিএ ৪.৫০ পেয়ে এইচএসসি পাস করেন। এরপর পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষি বিষয়ে অনার্সে ভর্তি হয়ে ২০১৫ সালে জিপিএ ৩.৮৬ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। ওই বছরে কৃষিতত্ত্ব বিষয়ে মাস্টার্সে ভর্তি হয়ে জিপিএ ৩.৮৮ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

তার বাবা আব্দুল আজিজ হাওলাদার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্পিডবোট চালক। মা লাইজু বেগম গৃহিণী। ঝালকাঠি শহরের কৃষ্ণকাঠি ওয়ার্ডের গুরুধাম এলাকায় থাকে তার পরিবার।

তামান্না বলেন, সংসার চালানোয় টানাপড়েনের কারণে প্রতিবেশীরা অনেকে কটাক্ষ করতো। ‘মেয়ে হওয়া দুর্বলতা নয়, শক্তি’ এই দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে এবং আল্লাহর রহমতে সফলতায় পৌঁছতে সক্ষম হয়েছি।

মেয়েকে নিয়ে আব্দুল আজিজ হাওলাদার বলেন, অনেক কষ্ট করে, খেয়ে না খেয়ে মেয়েদের মানুষ করার চেষ্টা করছি। মেজো মেয়ে বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে এটাই আত্মতৃপ্তি।

About pressroom

Check Also

‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় ৩২ ছাড়া গতি নাই’

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা স্থায়ীভাবে ৩২ বছর করার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে শিক্ষার্থীদের সমাবেশ চলছে। বৃষ্টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered by keepvid themefull earn money