তানজিমা আঞ্জুম সোহানিয়া। ২০১০ সালে চ্যানেল আই লাক্স সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন। সেখানে তিনি সেরা দশের তালিকায় নির্বাচিত হয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, পুরস্কার জিতে নেন ক্লোজআপ মিস বিউটিফুল স্মাইল ক্যাটাগরিতেও।

এরপর শোবিজে কিছু কাজ করেছেন তিনি। তবে নিয়মিত ছিলেন না। পড়াশোনার ব্যস্ততায় নিজেকে গুটিয়ে রেখেছিলেন।

এবার জানা গেল এই লাক্স সুন্দরী এখন বিসিএস প্রশাসন ক্যাডার।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের এই ছাত্রী লাক্স সুন্দরী ৩৭তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে গেজেটপ্রাপ্ত হয়েছেন। ২০ মার্চ প্রকাশিত সরকারি প্রজ্ঞাপনে তিনি নিয়োগের সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। ইতিমধ্যে তিনি কাজেও যোগ দিয়েছেন।

মজার ব্যাপার হলো একই বছর ৩৭তম বিসিএসে সোহানিয়ার স্বামী মেহেদি ইসলাম ফুয়াদ পুলিশ ক্যাডারে গেজেটপ্রাপ্ত হয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে সবার দোয়া চেয়ে সোহানিয়া একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন ফেসবুকে। তিনি লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। মহান আল্লাহ পাকের অশেষ মেহেরবানিতে ৩৭তম বিসিএসে সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে গেজেটেড হলাম। আজ এই সাফল্যের পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান আমার পরম শ্রদ্ধেয় বাবা ও মায়ের। আমার ভাই যাদের সাপোর্ট, দোয়া ও ভালোবাসা ছাড়া এই অর্জন হয়তো কখনই সম্ভব হতো না। অনেক অনেক ভালোবাসা তোমাদের জন্য।

আর একজনের কথা না বলেই নয়, সে হচ্ছে আমার জীবনসঙ্গী ফুয়াদ, যে আমার এই বিসিএসের স্বপ্নপূরণের পথে সবসময় আমার পাশে থেকেছে। আমাকে সাহস দিয়েছে। আমার স্বামীও সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে গেজেটেড হয়েছে। সবাই আমার ও আমার স্বামীর জন্য দোয়া করবেন, যেন আমরা দেশ ও মানুষের সেবা করতে পারি।’

জানা গেছে, সোহানিয়ার বাবা ডা. আজিজুল হক খান সরকারি কর্মকর্তা। মা সালমা সুলতানা গৃহিণী। ৫ম শ্রেণিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছিলেন সোহানিয়া। ছোটবেলা থেকেই ট্যালেন্টদের তালিকায় নাম ছিল তার।

ছোটবেলা থেকেই সংস্কৃতির সঙ্গে তার সম্পর্ক। গান ও একক অভিনয়ে জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কারও রয়েছে। কাবস্কাউট জাতীয় পর্যায়ে রানার্স আপ হয়েছেন। পাশাপাশি নাচেও তিনি ছিলেন সেরা।

টাঙ্গাইলের বিন্দুবাসিনী সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে এসএসসিতে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ ও এইচএসসিতে কুমুদিনী সরকারি কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছেন তিনি। তুখোড় মেধাবী ওই ছাত্রী এরপর ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১২ জুন ৩৭তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করে পিএসসি। এতে ১ হাজার ৩১৪ জনকে বিভিন্ন ক্যাডার পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়।

এরপর চলতি বছরের ২০ মার্চ ৩৭তম বিসিএসে ১ হাজার ২২১ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। সে তালিকায় ছিলেন সোহানিয়া ও তার স্বামী ফুয়াদ।

News Reporter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *